শহরের বানিজ্যিক এলাকায় সুপ্রীম কোর্টের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বাউন্ডারী ও দোকান ঘর নির্মাণের চেষ্টা
তারিখ: ১৯-জুন-২০১৭
স্টাফ রিপোর্টার ॥

হবিগঞ্জ শহরের চৌধুরী বাজার বানিজ্যিক এলাকায় সুপ্রীম কোর্টের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে প্রভাবকাটিয়ে পাকা বাউন্ডারী করে দোকান ঘর নির্মাণের চেষ্টা করছেন হাজী সাহাব উদ্দিন নামে এক ব্যক্তি। এ ঘটনায় এলাকাবাসীর মধ্যে প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। জানা যায়, ওই বাউন্ডারী নির্মানের জায়গায় স্বত্ত্ব মালিকাধীন হিসেবে সদর উপজেলার নিজামপুর গ্রামের মরহুম মাওলানা আলহাজ্ব লাল মিয়ার পুত্র মোঃ কুতুব উদ্দিন গংরা রয়েছেন। এতে করে তারা ওই জায়গার উপর সাব জজ-১ আদালতে একটি বাটোয়ারা মামলা করেন। যার নং ১১৯/৮১ইং। এরপর ২০০০ সালে উক্ত মামলাটি সাব জজ আদালত কুতুব উদ্দিন গংদের পক্ষে রায় দেন। পরবর্তীতে হাজী সাহাব উদ্দিন গংরা ২০০১ সালে হাইকোর্টে মামলাটি আপিল করে। যার নং-এফএ-২৬০/০১ইং। এমতাবস্থায় ২০১৫ সালে নিম্ন আদালতের রায় বহাল রেখে হাইকোর্ট আবারও কুতুব উদ্দিন গংদের পক্ষে রায় দেন। পরবর্তীতে সাহাব উদ্দিন গংরা সুপ্রীম কোর্ট আদালতে সিভিল পিটিশন দাখিল করেন। যার নং-সিপি ২০২৫/১৫ইং। বর্তমানে মামলাটি আদালত লিভ টু আপিল মঞ্জুর করেন এবং ওই জায়গার উপর নিষেধাজ্ঞা বহাল রাখেন। যার নং সিএ-১৮০/১৭ইং। কিন্তু সুপ্রীম কোর্ট আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ওই জায়গায় সীমানা প্রাচীর তৈরী করে টিনশেডের মাধ্যমে একটি দোকান ঘর নির্মান করে। এরপর আবারও ওই জায়গায় রাতের অন্ধকারে গোপনীয় ভাবে চারপাশে টিনশেড দিয়ে ভীতরে পাকা দেয়াল নির্মান করে আসছেন। বিষয়টি ওই জায়গার স্বত্ত্ব মালিকাধীন ব্যক্তিদের নজরে আসলে তারা বাধা দেন। কুতুব উদ্দিন গংরা জানান, সাহাব উদ্দিন গংরা ওই জায়গায়সহ অন্যান্য  দোকান ভাড়াটিয়াদের কাছ থেকে অতিরিক্ত সিকিউরিটি আদায় করার চেষ্টা করছেন। অন্যথায় তাদেরকে দোকান ছাড়ার হুমকি দিয়ে আসছেন। কুতুব উদ্দিন গংরা মনে করছেন সাহাব উদ্দিন গংরা সে আইনের প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে যে কোন সময় বড় আকারের দোকান ঘর নির্মান করবে।





প্রথম পাতা