চুনারুঘাটে মামুন হত্যা মামলার আসামী সুনাই মিয়াকে পুলিশে সোপর্দ করেছে জনতা
তারিখ: ১৩-সেপ্টেম্বর-২০১৭
চুনারুঘাট প্রতিনিধি ॥

চুনারুঘাটে পূর্ব বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষকে বন্দুক দিয়ে প্রাণে হত্যার করার চেষ্টা ও কিশোর মামুন মিয়া হত্যার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে সুনাই মিয়া আটক করে কেউন্দা গ্রামবাসীরা। গতকাল সোমবার রাত সাড়ে ৮টায় সময় পৌর শহরের নতুন বাজারে থেকে গ্রামবাসীরা আটক করে থানায় পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে। সে উপজেলার কেউন্দা গ্রামের মৃত আঃ হাসেমের ছেলে। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার কেউন্দা গ্রামের বাচ্চু মিয়ার সাথে একই গ্রামের বশির মাষ্টার ও তার ভাই ছগীর মিয়ার সাথে জমিজমা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে চলচিল। এর নিয়ে দু’পক্ষের মাঝে একাধিক মারামারি সংঘটিত ও মামলা রয়েছে। এ বিষয় নিয়ে বশির মাস্টার, ছগির মিয়ার পক্ষে সুনাই মিয়া, মুখলিছ, জুনেল ও এখলাছ এবং বাচ্চু মিয়া পক্ষে সবুজ মিয়া, ফজুল, মনসুরের সাথে বর্গাকার জমিজমা নিয়ে ঝগড়া বিবাধ চলে। এরই জের ধরে গত ১৪ জুলাই ছগির মিয়া ও সুনাই মিয়া প্রতিপক্ষ সবুজ মিয়ার উপর বন্দুক নিয়ে হামলা চালায়। এ সময় গ্রামবাসী ও পুলিশ এগিয়ে আসলে সবুজ প্রাণে রক্ষা পায়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি বন্দুক, গুলিসহ ছগির মিয়াকে হাতেনাতে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে। পরে এ ব্যাপারে সবুজ মিয়া বাদী হয়ে ছগির মিয়া ও সুনাই মিয়াকে আসামী করে চুনারুঘাট থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এ বিষয়ে চুনারুঘাট থানার ওসি (তদন্ত) মোঃ নুরুল ইসলাম আটকের বিষয়টি সত্যতা স্বীকার করে বলেন পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে যাবার সময় কেউন্দা গ্রামের বাসিন্দারা সুনাই মিয়াকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

প্রথম পাতা
শেষ পাতা