আদালতে স্বীকারোক্তি দিয়েছে ঘাতক শামীম ॥ বোনকে প্রেমের প্রস্তাব দেয়ায় স্কুল ছাত্রকে লিঙ্গ কেটে হত্যা
তারিখ: ১৩-ফেব্রুয়ারী-২০১৮
দিদার এলাহী সাজু ॥

বাহুবলে স্কুল ছাত্রকে লিঙ্গ কেটে হত্যার অভিযোগে আটক ঘাতক শামীম হত্যাকান্ডের লোমহর্ষক বর্ণনা দিয়েছে। আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি প্রদানকালে হত্যাকান্ডের দায় স্বীকার করে শামীম জানায়, ‘বোনকে উত্ত্যক্ত ও প্রেমের প্রস্তাব দেয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে সে এ ঘটনা ঘটিয়েছে’। গতকাল সোমবার রাত ৮টায় হবিগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তৌহিদুল ইসলামের আদালতে জবানবন্দি গ্রহণ শেষে তাকে কারাগারে পাঠিানো হয়। আদালত সূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। ঘাতক শামীম (১৮) উপজেলার ভাদেশ্বর ইউনিয়নের খোঁজারগাও গ্রামের আমির আলীর পুত্র। প্রসঙ্গত, গত শনিবার বিকালে উপজেলার বানিয়াগাও মাদ্রাসার তাফসির মাহফিলে যায় খোঁজারগাও গ্রামের আব্দুল হান্নানের পুত্র হাবিব মিয়া (১২)। তাফসির থেকে ফেরার পথে রাতের কোন এক সময়ে তাকে লিঙ্গ কেটে হত্যা করা হয়। পরদিন গত রোববার সকাল সাড়ে ১১টায় বানিয়াগাও গ্রামের পার্শ্ববর্তী এলাকা থেকে তার মৃত দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় নিহতের পিতা আব্দুল হান্নান বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তার বন্ধুসহ সন্দেহভাজন ৫ জনকে আটক করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করায় শামীম মিয়া নামের এক যুবককে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে প্রেরণ করা হয়। গতকাল সোমবার আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি প্রদানকালে হত্যাকান্ডের দায় স্বীকার করে ঘাতক শামীম। ঘটনাটি নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।





প্রথম পাতা
শেষ পাতা