ধুলিয়াখালে শুটকি পিঠা খাইয়ে পরিবারের সদস্যদের অচেতন ॥ সর্বস্ব লুট
তারিখ: ৯-নভেম্বর-২০১৮
জাহেদ আলী মামুন ॥

হবিগঞ্জ সদর উপজেলার ধুলিয়াখালে শুটকির পিঠা খাইয়ে মহিলা চিকিৎসকসহ ৫ জনকে অচেনত করে সর্বস্ব লুটে নিয়েছে একদল দুর্বৃত্ত ভাড়াটিয়া। মুমুর্ষ অবস্থায় তাদেরকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পরিবার সূত্র জানায়, ৩ দিন আগে ব্রাহ্মণ বাড়িয়া জেলার নাসিরনগরের আক্তার মিয়া নামে এক ব্যক্তি ব্যবসায়ী পরিচয় দিয়ে ধুলিয়াখালের কারাগারের সামনে ব্যবসায়ী বিলাল উদ্দিনের বাসা ৩ হাজার টাকায় ভাড়া নেয়। গত বুধবার রাতে ওই ভাড়াটিয়া বিলাল উদ্দিন (৪৮) ও তাদের পরিবারের সদস্যদের শুটকির পিঠা খেতে দেয়। এ সময় বিলাল উদ্দিন ও তার পরিবারের সদস্যরা ওই শুটকির পিঠা খাওয়ার ঘন্টাখানেক পর বিলাল উদ্দিন, ও স্ত্রী আনোয়ারা বেগম (৪০), তার বোন আয়েশা বেগম (৫০) ও তার অপর ভাড়াটিয়া জুয়েল মিয়ার স্ত্রী পল্লী চিকিৎসক সুমি বেগম (২২) অচেতন হয়ে পড়েন। এই সুযোগে আক্তার মিয়া ও তার লোকজন ঘরে থাকা নগদ আড়াই লাখ টাকার স্বর্ণাঙ্কার, মোবাইল ফোন ও মূল্যবান কাপড়চোপড় নিয়ে পালিয়ে যায়। গতকাল বৃহস্পতিবার দিনভর প্রতিবেশীরা বিষয়টি আচ করতে পারেনি। সন্ধ্যার দিকে দরজা না খোলায় পাড়া প্রতিবেশিদের সন্দেহ সৃষ্টি হয়। দরজা ভেঙ্গে তাদেরকে অচেতন অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। এ ব্যাপারে সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক সাইফুর রহমান সোহাগ জানান, নেশা জাতীয় দ্রব্য খাইয়ে তাদেরকে অচেতন করা হয়েছে।





প্রথম পাতা
শেষ পাতা