প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে এখনো চলছে দৌড়ঝাপ ॥ লাখাইয়ে পানিতে ডুবে নিহত শিশুর লাশ নিয়ে নাটক!
তারিখ: ১১-অক্টোবর-২০১৮
স্টাফ রিপোর্টার ॥

লাখাই উপজেলার মুড়িয়াউক গ্রামে পানিতে ডুবে নিহত শিশুর লাশ নিয়ে চলছে নাটক। প্রতিপক্ষকে ফাসাঁতে এখনো চলছে দৌড়ঝাপ। এলাকায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া। সাধারণ মানুষের মাঝে জন্ম নিয়েছে নানা প্রশ্নের। জানা যায়, গত সোমবার সকালে লাখাই উপজেলার মুড়িয়াউক গ্রামের বাসিন্দা হাশিম মিয়ার শিশু পুত্র বাড়ির পাশে খেলা করছিল। এ সময় সকলের অগোচরে হাশিম মিয়ার বসত ঘরের পাশে পুকুরে পরে যায়। অনেক খুজাখোজির পরও শিশু আশ্রাব মিয়াকে পাওয়া যাচ্ছিল না। হঠাৎ করে পরিবারের লোকজন পুকুরে শিশু আশ্রাব এর মৃতদেহ ভাসতে দেখতে পান। পরে পরিবারে লোকজন শিশু আশ্রাবকে উদ্ধার করে লাখাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। স্থানীয়রা জানান, সোমবার সকালে শিশুদের সাথে খেলাধুলা করতে গিয়ে সকলের অগোচরে আশ্রাব মিয়া পুকুরের পানিতে পরে যায়। তাকে কোথাও না পেয়ে পুকুরের পানিতে ভেসে থাকতে দেখেন। সাথে সাথে তাকে উদ্ধার করে লাখাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। তখন শিশুটির লাশ নিয়ে বাড়িতে যাওয়ার পর লাশ দাফন না করে গ্রামের কয়েকজন গডফাদার ও অন্য একটি হত্যা মামলার আসামীদের ইন্দনে নতুন নাটক সাজাতে চেষ্টা করে। ওই গ্রামে সাম্প্রতিক সময়ে আব্দুল কুদ্দুছ মোল্লা নামে এক ব্যক্তিকে হত্যা করে মাসুক ও ছুরুক মিয়া গং। ওই মামলার আসামী শিশু আশ্রাব মিয়ার পিতা হাশিম মিয়া ও তার আত্মীয়-স্বজন। এই ঘটনার প্রতিশোধ নিতে শিশু আশ্রাব মিয়াকে হত্যা করা হয়েছে বলে নাটক সাজিয়ে প্রতিপক্ষকে ফাসাঁতে উঠেপড়ে লেগেছে। মামলা করার উদ্যোগ নেয় তার পরিবারের লোকজন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় লোকজন বলেন, শিশুটি পানিতে ডুবে মৃত্যু বরণ করেছে বলে আমরা শুনেছি। এবং তাদের পুকুর থেকেই শিশুকে অর্ধমৃত অবস্থায় পরিবারের লোকজন উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে তার মৃত্যু হয়। কিন্তু এখন শোনতে পাচ্ছি শিশুর পরিবারের লোকজন তাদের প্রতিপক্ষকে ফাসাঁতে হত্যা মামলা দায়েরের চেষ্টা করছে। তাদের এমন কর্মকান্ডে এলাকার শান্ত পরিবেশ নষ্ট হওয়ার উপক্রম হয়ে উঠেছে। আমরা এলাকায় শান্তিপ্রিয়ভাবে বসবাস করতে চাই।

এ ব্যাপারে লাখাই থানার ওসি মোঃ এমরান হোসেন বলেন, পরিবারের লোকজন ও এলাকাবাসী জানান মায়ের অসতর্কতার জন্য শিশু আশ্রাব মিয়ার মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু আশ্রাবের পরিবারের লোকজন প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করতে হত্যা মামলা দায়েরের চেষ্টা করছে। আমরা এ বিষয়ে অপমৃত্যু মামলা গ্রহণ করেছি। আমরা মঙ্গলবার সকালে লাশের ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ আধুনিক জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হবে।

নিস্পাপ শিশুর লাশ নিয়ে এ ধরনের ঘৃণ্য নাটক সাজানোর চেষ্টার খবর লাখাই উপজেলায় ছড়িয়ে পড়ায় ব্যাপক মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। সবাই বলছেন প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে শিশুর লাশ নিয়ে এ ধরনের রাজনীতি দুঃখজনক। তারা বিষয়টি তদন্ত করে যারা এ ধরনের ঘটনা সাজানোর চেষ্টা করছে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানান।





প্রথম পাতা